রাউটার কেন নেট ছেড়ে দেয়

রাউটার কেন নেট-ছেড়ে দেয়

রাউটার কেন নেট ছেড়ে দেয়

 

কম বেশি আমরা সবাই একটা সমস্যা প্রতিনিয়ত ফেস করি; আর তা হলো রাউটারের নেট ছেড়ে দেওয়া। অনেক আইএসপি এটা অলওয়েজ ইউজারের রাউটারের সমস্যা বলে ধরে নেন, আবার অনেক ইউজার অলওয়েজ ইন্টারনেট কানেকশনের সমস্যা বলে ধরে নিই। বাট বিষয়টা এভাবে silmplly চিন্তা করার কোন অবকাশ নাই। বেশ কিছু কারণ রয়েছে যেগুলো কিনা এই ঘটনার জন্য দায়ী। তার মধ্যে ইম্পর্টেন্ট পাঁচটা কারণ আজকে  আমি ব্যাখ্যা করব এবং সেগুলোর সমাধানও দিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করব।

ব্যান্ডউইথের স্বল্পতা

অনেক সময় দেখবেন 10-15Mbps ইন্টারনেট কানেকশনেও জুম মিটিং ডিসকানেক্টেড বা সম্পূর্ণভাবে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছে। এর কারণ হচ্ছে, বাসার অন্যরাও একই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে একই সময়ে হয়তো HD বা 4k মুভি স্ট্রিম করতেছে এবং অনলাইনে গেম খেলতেছে। ঠিক এর বিপরীতটাও হতে পারে। মুভি স্ট্রিমিং ব্যাহত হতে পারে.. আপনার গেমের বারোটা বেজে যেতে পরে।

এর কারণ আপনার এই ব্যান্ডউইথ আসলে পর্যাপ্ত না এতগুলো কাজ একসাথে করার জন্য। আপনার সামগ্রিক ব্যান্ডউইথের স্পীড কমে যাবে যদি আপনাদের অনেকগুলি ডিভাইস একই সাথে খুব বেশি ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করতে থাকে। বিশেষ করে ব্যান্ডউইথের তুলনায় যখন একসাথে অনেকে ইউজ করবেন, অর্থাৎ ইউজেজ অধিক পরিমাণে হয়ে যাবে তখন এই সমস্যাটি বেশি বেশি হবে। মোবাইল ফোনগুলি তখন এমনও আছে Wi-Fi থেকে সংযোগ বিচ্ছিন্নও করতে দিতে পারে।

সমাধান

তো এই সমস্যার পসিবল সমাধান হচ্ছে আপনাদের বাসার প্রত্যেকটা ডিভাইসের কার কি কাজ সেই অনুসারে টোটাল ব্যান্ডউইথটা ক্যালকুলেশন করে নেওয়া এবং আইএসপির কাছ থেকে সেই পরিমাণ ব্যান্ডউইথ এর সংযোগ নেওয়া।

Faulty ONU অথবা MC

আপনার ONU ডিভাইসের কোন প্রবলেম কারণে যদি সেটা olt মেশিনের সঙ্গে সংযোগ কনটিনিউ করতে ব্যর্থ হয় তাহলে আপনার নেট ছেড়ে দিবে। এখন এই অনুর এই সমস্যাটা বিভিন্ন কারণে হতে পারে। তার মধ্যে যান্ত্রিক কোনো সমস্যা থাকতে পারে, অনু বেশি পুরনো হয়ে গেলে এমনটা হতে পারে, ফাইবার অপটিক কেবল থেকে প্রচুর প্যাকেট লস হওয়ার কারণে হতে পারে…এছাড়াও নেটওয়ার্কের মধ্যে থাকা আরও যেসব কম্পনেন্ট বা ডিভাইস রয়েছে..যেমন ধরেন splitter…এগুলোর সমস্যার কারণে যদি লেজার অতিরিক্ত দুর্বল হয়ে যায়, তখন অনু ডিভাইস সার্ভারের সঙ্গে প্রপারলি লিংক স্টাবলিস্ট করতে পারেনা। এখন অণুতে ঝামেলা করুক আর যেখানেই করুক….ঘুরেফিরে ওটার রেজাল্ট আপনার রাউটারের উপরে এসেই পড়বে। MC connection এর বেলাতেও কথাগুলো একই ভাবে প্রযোজ্য।

সমাধান

ভালো ব্র্যান্ডেড ONU ইউজ করবেন। প্রাথমিকভাবে যেটা করতে পারেন, অনুর ভেতরে যে ফাইবার অপটিক প্যাঁচকর্ড প্রবেশ করেছে সেটাকে একটু টেনে খুলে রেখে কিছুক্ষণ পরে আবার ইনসার্ট করতে পারেন। এতে মূল সার্ভারের সাথে লিংক completely ছেড়ে দিয়ে নতুন করে আবার লিংক স্তব্লিস্ট হবে। অনুর কারণে লাইন ছেড়ে দেয়ার প্রবলেমটা Frequently হতে থাকলে ISP কে বলে অবশ্যই অনু চেঞ্জ করার ব্যাবস্থা করতে হবে এবং সেক্ষেত্রে আইএসপি কি ধরনের সার্ভার বা OLT মেশিন ব্যবহার করে তার সাথে মিলিয়ে ভালো ব্র্যান্ডের এবং ভালো মানের একটা অনু কিনে আইএসপিকে সেটা সেট করে দেওয়ার জন্য বলতে হবে।

স্লো ডাটা রেট

ওকে ডাটা রেট জিনিসটা কি সেটা আগে একটু ক্লিয়ার করে দেই। এটা হচ্ছে ব্যান্ডউইথে থাকা প্রত্যেকটা ডাটার নিজস্ব গতি। ফর এক্সাম্পল ফাইবার অপটিক ক্যাবল এর ভিতরে ডাটা অলমোস্ট আলোর গতিতে ট্রাভেল করে বা করতে পারে। ছোট ডাটাগুলোর গতি বেশি থাকে, আর বড় বড় ডাটাগুলোর গতি অপেক্ষাকৃত কম থাকে। এখন এই গতি গুলো ব্যান্ডউইথের কোয়ালিটি যত ভালো থাকবে ততবেশি আলোর গতির কাছাকাছি হবে। আর ব্যান্ডউইথের কোয়ালিটি ডিপেন্ড করে ফাইবারের কোরের কোয়ালিটির উপরে। কারণ এই কোর দিয়ে আলো ট্রান্সফার হয় অর্থাৎ ডাটা ট্রান্সফার হয়। এখন প্লিজ dont ask Core কি। লিংক এখানে দেওয়া থাকবে, এ ভিডিও টা শেষ করে একটু দেখে আসবেন।

লো কোয়ালিটি ফাইবার অপটিক ক্যাবল অথবা পুরনো কেবল যেগুলোর কোর বিভিন্ন ধরনের ভাঁজ টাজ খেয়ে খুবই খারাপ অবস্থা হয়ে গেছে …, সে ধরনের কেবলের ভিতর দিয়ে ভালোভাবে রিফ্লেক্টেড হয়ে ট্রান্সফার হতে পারবে না, সো ডেটাগুলোও ঠিকভাবে ট্রান্সফার হতে পারবে না। ফলে আপনার লাইনের ডাটা রেট অর্থাৎ ডাটার গতি definitely স্লো থাকবে। অনেক সময় কিছু রাউটার দেখবেন রেড লাইট শো করে লাইন ছেড়ে দেবে। দু’একটা কেস হয় তো বা রাউটারের সমস্যার কারণে হতে পারে। 95% কেস ডাটা স্পিড slow থাকার কারনে হয়।

সমাধান

লেজারটা কত আছে তা টেস্ট করা, অর্থাৎ লেজার কতটা মাইনাসের দিকে গেছে সেটা আইডেন্টিফাই করা। লাইন যখন নিয়েছেন তখন লেজার হয়তো ভালো ছিল, তাই বলে always ভাল থাকবে, এমন কোনো কথা নেই। যেকোনো সময় এবং নানাবিধ কারণে এটার মান চেঞ্জ হতে পরে। সো রাউটার কানেকশন ছেড়ে দিলে লেজারের মান ঠিক আছে কিনা সেটা টেস্ট করতে হবে।

Faulty অথবা ইনক্যাপাবল রাউটার

আপনার রাউটার যদি খুব বেশি পুরনো থাকে, অথবা রাউটারের যে যোগ্যতা তার চাইতে তার উপরে যদি প্রেসার আপনি বেশি দেন তাহলে রাউটার নেট ছেড়ে দিতে পারে। এমনকি আপনার মোবাইল থেকে ওয়াইফাই সিগন্যালটাও চলে যেতে পারে, অর্থাৎ রাউটার কমপ্লিটলি মোবাইল ফোনকে ওয়াইফাই থেকে ডিসকানেক্ট করে দিতে পারে। প্রেশার বেশি দেওয়া বলতে ক্যাপাসিটির তুলনায় অতিরিক্ত ডিভাইস এড করা এবং সেগুলো দিয়ে ভারী ভারী কাজ করাকে বোঝাচ্ছি। এখন কোন মোবাইল ফোনটাকে রাউটার ছেড়ে দিবে এটা ডিপেন্ড করবে সবচেয়ে কম সিংক অবস্থাতে অথবা লিঙ্ক স্পিডে আপনাদের বাসার কোন মোবাইল ফোনটা ছিল তার উপরে।

সমাধান

রাউটার যদি বেশি পুরনো হয়ে থাকে, ডিস্টার্ব দেয়… জাস্ট লিভ ইট, অ্যান্ড get a new one. আদারোয়াইজ ভোগান্তির শেষ থাকবে না। আর আগেরটা যদি multi-functional হয় অর্থাৎ রিপিটার বা রেঞ্জ এক্সটেন্ডার এই টাইপের কোন মোড যদি সেখানে থাকে, তাহলে চাইলে নতুনটার সাথে সেটাকে ইউজ করতে পারেন।

প্রবলেম কখন করে

একটা জিনিস নোটিশ করতে হবে যে কানেকশন ছেড়ে দেওয়ার টাইমিং টা কিরকম। Only পিক আওয়ারে? নাকি আলওয়েজ সমস্যাটা করে? এই জিনিসটা ধরতে পারা খুবই ইমপরটেন্ট এবং একেবারে সহজ। যদি পিক-আওয়ারে সমস্যা করে অর্থাৎ সন্ধ্যার পর থেকে রাত 12 টার ভিতরে তাহলে আপনার রাউটারের প্রবলেমের কারণে এই সমস্যাটা হওয়ার সম্ভাবনা অত্যান্ত কম। যদি মোটামুটি ভালো মানের রাউটার হয় তাহলে এই সম্ভাবনা একেবারে নাই বললেই চলে। তাহলে সমস্যাটা কোথায়? সমস্যাটা ব্যান্ডউইথে। এখানে দুইটা জিনিস হতে পারে। হয় আপনি আপনার চাহিদা অনুসারে ব্যান্ডউইথ নেন নাই, কম নিসেন। আর দুই, আইএসপির ওভারঅল ব্যান্ডউইথের উপরে প্রেশার বেড়ে গেছে। এখন এই প্রেশারটা আবার দুই কারণে বাড়তে পারে। হয় আইএসপি তার ব্যান্ডউইথের ক্যাপাসিটির তুলনায় বেশি লাইন দিয়েছে, অথবা লাইন সে ঠিকই ব্যান্ডউইথ হিসাবেই দিছে, কিন্তু যারা লাইন নিয়েছে অর্থাৎ ইউজার এন্ড এ অতিরিক্ত ডিভাইস চলে আসছে। এখন পিক আওয়ারের লোড যদি আপনার রাউটার নিতে ব্যর্থ হয়, তখন আগে যেমনটা বলেছি যে কোন একটা বা দুইটা ডিভাইসকে রাউটার ছেড়ে দিতে পারে।

 

সমাধান

এটাই আমার ধারণা সবচেয়ে টাফেস্ট সলিউশন টু বি done. সো সমাধানটা মোটেও সহজ নয়। আইএসপির উচিত মোটামুটি একটা হিসাব নিকাশ করে পর্যাপ্ত পরিমাণ ব্যান্ডউইথের মাধ্যমে ইউজারদের কানেকশন দেওয়া। আর ইউজারদের উচিত সে যে পরিমাণ ব্যান্ডউইথ সে কিনেছে, সেই হিসেবে ডিভাইস ইউজ করা। অথবা তার যে পরিমাণ ডিভাইস এবং ইউজেস, সেই হিসাবে ব্যান্ডউইথ আইএসপির কাছ থেকে কেনা।

 

পরবর্তী ঝামেলা এড়ানোর জন্য….কানেকশন দেওয়ার সময় as a ISP এবং কানেকশন নেওয়ার সময় as a User; আপনারা আগে থেকেই ক্লিয়ার হয়ে নেবেন।

 

সবাই ভালো থাকেন, সুস্থ থাকেন এবং নিরাপদে থাকেন, আল্লাহ হাফেজ।

 

Total solution plus:

Total Solution Plus-Best Computer, Laptop & Gadget Shop in Bangladesh.Technology has now become our constant companion. Bangladesh is not lagging behind with time. Our Total Solution Plus is a trusted company in our country. We ensure the right price for our consumers. In the midst of all this busyness, our company Total Solution Plus provides their maximum service for proper safety and quality of products. Our goal is to gain consumer loyalty and provide quality products.

আপনিও ফিরে যান ১৯৯৮ সালের গুগলে
কখন বুঝবেন আপনার রাউটার বদলানোর সময় হয়েছে? When it’s time to upgrade Your Router?

Comments (5)

  1. masudalammahadi

    মাজহারুল ভাই, ধন্যবাদ।
    আনেক কিছু জানলাম।
    আজ পর্যন্ত অনেকজন এ ধরনের ভিডিও নেটে ছারলেও আপনার ধারের কাছেও জাইতে পারে নাই পারবেও না।। ভালোবাসা নিবেন।।

  2. TANVIRUL ISLAM

    ভাই আমার প্রবলেম হচ্ছে আমার মেন রাউটারের নেট কমে যায় কিন্তু সেকেন্ডারি রাউটারের স্পিড নেট থাকে কিন্তু মেন রাউটারের চ্যানেল চেঞ্জ করলে আবার ঠিক করে কিন্তু পরে গিয়ে আবার স্লো হয়ে যায়। এর কারণটা কি এটা নিয়ে একটা ভিডিও বানালে ভালো হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Categories
Products
My Cart
Wishlist
Recently Viewed
Categories